protichinta

সম্পাদক

মতিউর রহমান

সাংবাদিক। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পরিসংখ্যানে স্নাতকোত্তর। সম্পাদক ছিলেন সাপ্তাহিক একতা ও ভোরের কাগজ-এর। বর্তমানে প্রথম আলো-এর সম্পাদক। উল্লেখযোগ্য গ্রন্থ কার রাজনীতি কীসের রাজনীতি; ইতিহাসের সত্য সন্ধানে: বিশিষ্টজনদের মুখোমুখি; ধনিকগোষ্ঠীর লুঠপাটের কাহিনী; খোলা হাওয়া খোলা মন। ফিলিপাইনের ম্যানিলা থেকে 'সাংবাদিকতা, সাহিত্য ও সৃজনশীল যোগাযোগ'-এ ২০০৫ সালে পেয়েছেন র্যামন ম্যাগসাইসাই পুরস্কার।

নির্বাহী সম্পাদক

খন্দকার সাখাওয়াত আলী

গবেষক ও সমাজতত্ত্ববিদ। বর্তমানে ম্যানচেস্টার ও ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালিত প্রাথমিক শিক্ষার রাজনৈতিক অর্থনীতি গবেষণা প্রকল্পের গবেষণা টিমের সদস্য। ফেলো, পাওয়ার অ্যান্ড পার্টিসিপেশন রিসার্চ সেন্টার। পড়াশোনা করেছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাজতত্ত্ব বিভাগে এবং ইউনিভার্সিটি অব ওয়েলস, সোয়ানজি, যুক্তরাজ্যে উন্নয়ন অধ্যয়ন বিষয়ে। তাঁর সম্পাদিত গ্রন্থ আন্তোনিও গ্রামসি: জীবন সংগ্রাম ও তত্ত্ব (প্রথম সংস্ককরণ প্রসঙ্গ, ১৯৯১; দ্বিতীয় সংস্ককরণ আগামী, ২০১১) ফতোয়া: ১৯৯১-১৯৯৫ (শিক্ষা সংস্কৃতি চর্চা কেন্দ্র, ১৯৯৬); নতুন শতাব্দীতে স্থানীয় সরকার: পথ নির্ধারণে কতিপয় সংলাপ (পাঠক সমাবেশ ও পিপিআরসি, ২০০২); Researching Poverty from the Bottom-up Reflections on the Experience of the Programme for Research on Poverty Alleviation 1994-2002 (Garment Trust and PPRC)।

উপদেষ্টা পর্ষদ

নুরুল ইসলাম

শীর্ষস্থানীয় অর্থনীতিবিদ। বাংলাদেশের পরিকল্পনা কমিশনের ডেপুটি চেয়ারম্যান (১৯৭২-৭৫)। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের সাবেক অধ্যাপক। পাকিস্তান ইনস্টিটিউট অব ডেভেলপমেন্ট ইকোনমিকস (পরে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ডেভেলপমেন্ট স্টাডিস)-এর পরিচালক হিসেবে সুদীর্ঘকাল দায়িত্ব পালন করেছেন। ইন্টারন্যাশনাল ফুড পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের ইমেরিটাস ফেলো। উল্লেখযোগ্য প্রকাশনা—মেকিং অব এ নেশন: বাংলাদেশ: অ্যান ইকোনমিস্ট'স টেল (ইউপিএল, ২০০৩); এক্সপ্লোরেশন ইন ডেভেলপমেন্ট ইস্যুজ: সিলেক্টেড আর্টিকেলস অব নুরুল ইসলাম (অ্যাশগেট, ২০০৩); ডেভেলপমেন্ট প্ল্যানিং ইন বাংলাদেশ: এ স্টাডি ইন পলিটিক্যাল ইকোনমি (ইউপিএল, ১৯৭৯); ডেভেলপমেন্ট স্ট্র্যাটেজি অব বাংলাদেশ (পারগ্যামন, ১৯৭৮)।

আনিসুজ্জামান

লেখক ও গবেষক। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ইমেরিটাস। বিশ্বভারতীর অতিথি অধ্যাপক। ইউনিভার্সিটি অব প্যারিসের ভিজিটিং ফেলো এবং ইউনিভার্সিটি অব লন্ডনে কমনওয়েলথ একাডেমিক স্টাফ ফেলো হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। গুরুত্বপূর্ণ প্রকাশনা—পুরনো বাংলা গদ্য (অনুপম প্রকাশনী, ২০১০); কাল নিরবধি (সাহিত্য প্রকাশ, ২০০৭); স্বরূপের সন্ধানে (সাহিত্য প্রকাশ, ২০০৭); মুসলিম বাংলার সাময়িকপত্র (বাংলা একাডেমী, ১৯৬৯); মুসলিম-মানস ও বাংলা সাহিত্য (লেখক সংঘ, ১৯৬৪)।

আজিজুর রহমান খান

অর্থনীতিবিদ ও গবেষক। ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার প্রফেসর অব ইকোনমিকস ইমেরিটাস। গুরুত্বপূর্ণ প্রকাশনা—ইনইকুয়ালিটি অ্যান্ড পোভার্টি ইন চায়না ইন দ্য এজ অব গ্লোবালাইজেশন (অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি প্রেস, ২০০১); স্ট্রাটেজি অব ডেভেলপমেন্ট ইন বাংলাদেশ (ম্যাকমিলান, ১৯৯০); কালেকটিভ এগ্রিকালচার অ্যান্ড রুরাল ডেভেলপমেন্ট ইন সোভিয়েত সেন্ট্রাল এশিয়া (ম্যাকমিলান, ১৯৭৯); দ্য ইকোনমি অব বাংলাদেশ (ম্যাকমিলান, ১৯৭২)। এ ছাড়া বিভিন্ন জার্নাল ও সম্পাদিত গ্রন্থে তাঁর ৮০টিরও বেশি রচনা প্রকাশিত হয়েছে।

সিরাজুল ইসলাম

ইতিহাসবিদ ও গবেষক। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের সাবেক অধ্যাপক। বাংলাপিডিয়ার সম্পাদনা পর্ষদের সভাপতি। জার্নাল অব দ্য এশিয়াটিক সোসাইটি অব বাংলাদেশ-এর সম্পাদক। ইউনিভার্সিটি অব লন্ডনের সিনিয়র কমনওয়েলথ স্টাফ ফেলো ও ব্রিটিশ একাডেমির অতিথি অধ্যাপক হিসেবে কাজ করেছেন। গুরুত্বপূর্ণ প্রকাশনা—[সম্পা] হিস্টরি অব বাংলাদেশ (এশিয়াটিক সোসাইটি অব বাংলাদেশ, ১৯৯১); দ্য বেঙ্গল ল্যান্ড টেনিউর (১৯৯০); পারমানেন্ট সেটেলমেন্ট ইন বেঙ্গল (১৯৭৮); [সম্পা] রুরাল হিস্টরি অব বাংলাদেশ: আ সোর্স স্টাডিস (বাংলাদেশ হিস্টরিক্যাল স্টাডিস, ১৯৭৭)।

রওনক জাহান

রাষ্ট্রবিজ্ঞানী ও নারীবাদী লেখক। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক। ১৯৯০ সাল থেকে কলাম্বিয়া ইউনিভার্সিটিতে পড়াচ্ছেন এবং গবেষণা করছেন। নারীবাদী গবেষণা কেন্দ্র উইমেন ফর উইমেন-এর প্রতিষ্ঠাতা। রিসার্চ ইনিশিয়েটিভস বাংলাদেশ (রিব)-এর পরিচালক। গুরুত্বপূর্ণ প্রকাশনা—[সম্পা] বাংলাদেশ: প্রমিজ অ্যান্ড পারফরম্যান্স (জেড বুকস, ২০০০); দ্য ইল্যুসিভ এজেন্ডা: মেইনস্ট্রিমিং উইমেন ইন ডেভেলপমেন্ট (সেইন্ট মার্টিন'স প্রেস, ১৯৯৫); বাংলাদেশ পলিটিকস: প্রবলেমস অ্যান্ড ইস্যুজ (ইউপিএল, ১৯৮০); পাকিস্তান: ফেইলিউর ইন ন্যাশনাল ইন্টিগ্রেশন (কলাম্বিয়া ইউনিভার্সিটি প্রেস, ১৯৭২)।

আকবর আলি খান

অর্থনীতিবিদ ও প্রাবন্ধিক। ইতিহাস নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ গবেষণা করেছেন। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা এবং রেগুলেটরি রিফর্ম কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান। উল্লেখযোগ্য প্রকাশনা—অন্ধকারের উত্স হতে (পাঠক সমাবেশ, ২০১০); পরার্থপরতার অর্থনীতি (ইউপিএল, ২০০০); ডিসকভারি অব বাংলাদেশ: এক্সপ্লোরেশন ইনটু ডিনামিকস অব এ হিডেন ন্যাশন (ইউপিএল, ১৯৯৬); সাম আসপেক্টস অব পিজ্যান্ট বিহেভিয়র ইন বেঙ্গল, ১৮৯০-১৯১৪: এ নিও-ক্ল্যাসিকাল অ্যানালিসিস (এশিয়াটিক সোসাইটি অব বাংলাদেশ, ১৯৮২)।

ওয়াহিদউদ্দিন মাহমুদ

অর্থনীতিবিদ ও গবেষক। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক। ইউএন কমিটি ফর ডেভেলপমেন্ট পলিসির সদস্য। সাউথ এশিয়ান নেটওয়ার্ক অব ইকোনমিক রিসার্চ ইনস্টিটিউট-এর চেয়ারম্যান। পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ)-এর সাবেক চেয়ারম্যান। গুরুত্বপূর্ণ প্রকাশনা—পপুলার ইকোনমিকস: আনপপুলার এসেজ (ইউপিএল, ২০০২); [সম্পা] অ্যাডজাস্টমেন্ট অ্যান্ড বিয়ন্ড: দ্য রিফর্ম এক্সপেরিয়েনস ইন সাউথ এশিয়া (ম্যাকমিলান প্যালগ্রেভ, ২০০১); [সম্পা] হ্যান্ডবুক অন দ্য সাউথ এশিয়ান ইকোনমিকস (এডওয়ার্ড এলগার); থিওরি অ্যান্ড প্র্যাকটিস অব মাইক্রোফিন্যান্স (প্রকাশিতব্য)।

সম্পাদনা পর্ষদ

নজরুল ইসলাম

অর্থনীতিবিদ, প্রাবন্ধিক। সাবেক অধ্যাপক, অর্থনীতি বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও এমরি বিশ্ববিদ্যালয়, যুক্তরাষ্ট্র। উল্লেখযোগ্য প্রকাশনা— বাংলাদেশের গ্রাম (প্রথমা, ২০১০); [সম্পা] রিসারজেন্ট চায়না: ইস্যুজ ফর দ্য ফিউচার (প্যালগ্রেভ ম্যাকমিলান, ২০০৯); বাংলাদেশের উন্নয়ন সমস্যা (১৯৮৬); জাসদের রাজনীতি: একটি নিকট বিশ্লেষণ (১৯৮১)।

বদরুল আলম খান

বদরুল আলম খান দীর্ঘকাল ধরে বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনায় নিযুক্ত আছেন। চট্টগ্রাম ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাজতত্ত্ব বিভাগে শিক্ষকতার পর বর্তমানে তিনি অস্ট্রেলিয়ার সিডনি শহরে ইউনিভার্সিটি অব ওয়েস্টার্ন সিডনিতে অধ্যাপনা করছেন। তাঁর গবেষণার বিষয়বস্তু আন্তর্জাতিক সম্পর্ক, বাংলাদেশ সমাজ, শ্রেণী, ধর্ম ও বিশ্বায়ন। তিনি বেশ কয়েকটি গ্রন্থ রচনা করেছেন, যার মধ্যে পুঁজিবাদের সমাজতত্ত্ব, সমাজতত্ত্ব: সংকট ও সম্ভাবনার দেড় শ বছর, দর্শনের সংকট এবং তৃতীয় বিশ্ব, ধর্ম ও সমাজ বিপ্লব বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। সংঘাতময় বাংলাদেশ: অতীত থেকে বর্তমান নামক একটি গ্রন্থ প্রকাশের অপেক্ষায় আছে। বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ: একটি ইসলামি প্যারাডাইমের সন্ধানে নামক গ্রন্থের ওপর কাজ করছেন।

হাসান ফেরদৌস

লেখক ও প্রাবন্ধিক। জাতিসংঘের স্ট্র্যাটেজিক কমিউনিকেশনস ডিভিশনের কমিটি লিয়াজোঁ ইউনিটের প্রধান। সাহিত্য, নন্দনতত্ত্ব, মধ্যপ্রাচ্যসহ বিচিত্র বিষয়ে লিখেছেন। গুরুত্বপূর্ণ প্রকাশনা—রবীন্দ্রনাথ, গীতাঞ্জলি ও দুই হ্যারিয়েট (প্রথমা, ২০১১); ১৯৭১: বন্ধুর মুখ শত্রুর ছায়া (প্রথমা, ২০০৯); 'গুলিস্তাঁ' থেকে 'মিরজাফরের নাতি' (সময় প্রকাশন, ২০০৮)।

আলী রীয়াজ

লেখক ও গবেষক। ইলিনয় স্টেট ইউনিভার্সিটির পলিটিকস অ্যান্ড গভার্নমেন্ট বিভাগের সভাপতি ও অধ্যাপক। ক্লেফিন ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অব লিঙ্কন ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক। বিবিসি ওয়ার্ল্ড সার্ভিসে দীর্ঘদিন সাংবাদিকতা করেছেন। গুরুত্বপূর্ণ প্রকাশনা—রিলিজিওন অ্যান্ড পলিটিকস ইন সাউথ এশিয়া (রুটলেজ, ২০১০); ফেইথফুল এডুকেশন: মাদ্রাসা ইন সাউথ এশিয়া (রাটগার্স ইউনিভার্সিটি প্রেস, ২০০৮); ইসলামিস্ট মিলিট্যান্সি ইন বাংলাদেশ: এ কমপ্লেক্স ওয়েব (রুটলেজ, ২০০৮)।

আল মাসুদ হাসানুজ্জামান

লেখক ও গবেষক। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সরকার ও রাজনীতি বিভাগের অধ্যাপক। গুরুত্বপূর্ণ প্রকাশনা—[সম্পা] বাংলাদেশের নারী: বর্তমান অবস্থান ও উন্নয়ন প্রসঙ্গ (ইউপিএল, ২০০২); রোল অব অপজিশন ইন বাংলাদেশ পলিটিকস (ইউপিএল, ১৯৯৮)।

সাজ্জাদ শরিফ

কবি, অনুবাদক ও প্রাবন্ধিক। দৈনিক প্রথম আলোর ব্যবস্থাপনা সম্পাদক। সাহিত্য ও সংস্কৃতি প্রসঙ্গে বিভিন্ন সময়ে লেখালেখি করেছেন। গুরুত্বপূর্ণ প্রকাশনা—[সম্পা] বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ কবিতা (সপ্তর্ষি, ২০০৯); যেখানে লিবার্টি মানে স্ট্যাচু (সন্দেশ, ২০০৯); ছুরিচিকিত্সা (মাওলা ব্রাদার্স, ২০০৬)।

শিল্প নির্দেশক ও প্রচ্ছদ

অশোক কর্মকার

চিত্রশিল্পী।

সহকারী সম্পাদক

খলিলউল্লাহ্

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগ থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেছেন। আন্তর্জাতিক বিষয়সমূহ নিয়ে লেখালেখি ও গবেষণা করছেন। আগ্রহের বিষয় আন্তর্জাতিক রাজনীতি, পররাষ্ট্রনীতি, কূটনীতি, ভূ-রাজনীতি, উন্নয়নসহ সমসাময়িক বিষয়।

গোলাম মুস্তাফা

বর্তমানে প্রতিচিন্তার সহকারী সম্পাদক হিসেবে কাজ করছেন। নিয়মিত পেশাদার অনুবাদক। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগ থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ে অধ্যয়ন করেছেন। গবেষণার আগ্রহের মূল বিষয়গুলো হচ্ছে বাংলাদেশ এবং দক্ষিণ এশিয়ার ইতিহাস, সেক্যুলারিজম, রাজনীতি এবং ধর্ম, সিভিল-মিলিটারি সম্পর্ক, বাংলাদেশ-মিয়ানমার সম্পর্ক এবং সামাজিক এবং সাংস্কৃতিক অধ্যয়নের বিভিন্ন তত্ত্ব।

pathok

যোগাযোগের ঠিকানা

সিএ ভবন,
১০০ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,
কারওয়ান বাজার, ঢাকা - ১২১৫।

ফোন: ৮৮০-২-৮১১০০৮১, ৮১১৫৩০৭
ফ্যাক্স - ৮৮০-২-৯১৩০৪৯৬

protichinta kinte chile