protichinta

অপ্রত্যাশিত কিউবা: নব্বই-উত্তর নীতি সংস্কারের গতিধারা

এমিলি মরিস, অনুবাদ: প্রতীক বর্ধন

সারসংক্ষেপ

১৯৯১ সালে সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙে গেলে অন্যান্য সমাজতান্ত্রিক দেশও বিপদে পড়ে। সাবেক সোভিয়েত ব্লকভুক্ত দেশগুলোর প্রায় সবাই পুঁজিবাদে প্রত্যাবর্তন করলেও, কিউবা সে পথ মাড়ায়নি। এর জন্য দেশটিকে কম মূল্যও দিতে হয়নি। চরম ধৈর্য ও প্রজ্ঞার পরিচয় দিয়ে দেশটি সমাজতন্ত্র টিকিয়ে রেখেছে। অবশ্য এর জন্য দেশটিকে নানা সংস্কার করতে হয়েছে। কমিকন (Council for Mutual Economic Assistance-COMECON) ট্রেডিং ব্লক ভেঙে যাওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্র-কিউবার পর্যবেক্ষকেরা আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে বলেছিলেন, রাষ্ট্রনিয়ন্ত্রিত সমাজতান্ত্রিক অর্থনীতির পতন এই হলো বলে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পৃষ্ঠপোষকতাপ্রাপ্ত কিউবাবিশারদেরা বলেছিলেন, দেশটিকে বাজার অর্থনীতি গ্রহণ করতে হবে। কিন্তু ফিদেল কাস্ত্রোর একগুঁয়ে মনোভাব ও পরবর্তীকালে রাউল কাস্ত্রোর সংস্কারের কারণে দেশটিতে এখনো সমাজতন্ত্রের ঝান্ডা উড়ছে।

১৯৬২ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট কেনেডি কিউবার ওপর অবরোধ আরোপ করলে সত্তর ও আশির দশকে কিউবা বাণিজ্য ও বিনিয়োগের জন্য ব্যাপক মাত্রায় নির্ভরশীল হয়ে পড়ে সোভিয়েত রাশিয়ার ওপর। সোভিয়েত ইউনিয়ন তখন দেশটিকে নানা সুবিধাও দিয়েছে। কিন্তু সোভিয়েত ইউনিয়নের পতনের পর কিউবা আর সে সুবিধা পায়নি। এমনকি সাবেক কমিকনভুক্ত দেশগুলো ১৯৯০-এর দশকে যে সুবিধা পেয়েছে, তারা সেটাও পায়নি। ফলে কিউবাকে অনেক ঝড়-ঝঞ্ঝা সহ্য করতে হয়েছে। এরপর তারা দেশে কিছু সংস্কার আনে। বেসরকারি খাতকেও তারা কিছুটা উত্সাহিত করে। বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনকারী ব্যক্তিদের দেশে ফেরার সুযোগ দেয়। আবার তাদের কাছ থেকে কর আদায়ের ব্যাপারেও সচেষ্ট হয়।

এ সময় দেশটি শিক্ষা ও স্বাস্থ্য খাতে ব্যাপক গুরুত্বারোপ করে। ফলে দরিদ্র দেশ হওয়া সত্ত্বেও তার স্বাস্থ্য ও শিক্ষাব্যবস্থা এই অঞ্চলের জন্য আলোকবর্তিকা হয়ে আছে। এ থেকে বোঝা যায়, বৈপরীত্য ও সমস্যা থাকলেও রাষ্ট্রনিয়ন্ত্রিত উন্নয়ন মডেলের মধ্যেও বাজার ব্যবস্থাপনা অন্তর্ভুক্ত করা যায়। আর সে ক্ষেত্রে রাষ্ট্রকে সব নিয়ন্ত্রণ ছেড়ে দিতে হবে, তেমনটি মোটেই জরুরি নয়। অথবা পুঁজিবাদের পথে হাঁটতে হবে, সে কথাটিও শতসিদ্ধ নয়। প্রবন্ধটি মান্থলি রিভিউ জুলাই-আগস্ট ২০১৪ সংখ্যা থেকে অনূদিত।

মূখ্য শব্দগুচ্ছ: অবরোধ, কমিকন, কিউবাবিশারদ, মন্দা, ক্রান্তিকাল, বাজার ব্যবস্থাপক, শ্রমিক, ওয়াশিংটন কনসেনসাস (পিডব্লিউসি), ডে জিরো, যুক্তরাষ্ট্র, সোভিয়েত ইউনিয়ন, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, মৃত্যুহার, গড় আয়ু। 

pathok

যোগাযোগের ঠিকানা

সিএ ভবন,
১০০ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,
কারওয়ান বাজার, ঢাকা - ১২১৫।

ফোন: ৮৮০-২-৮১১০০৮১, ৮১১৫৩০৭
ফ্যাক্স - ৮৮০-২-৯১৩০৪৯৬

protichinta kinte chile