protichinta

ভয়ের সংস্কৃতির শিকড়-সন্ধান

রেজাউল হক

ভয়ের সংস্কৃতি: বাংলাদেশে আতঙ্ক ও সন্ত্রাসের রাজনৈতিক অর্থনীতি,আলী রীয়াজ, ২০১৪, প্রথমা প্রকাশন, ঢাকা।

সাবিন মাহমুদ, পাকিস্তানের একজন মানবাধিকারকর্মী। করাচির প্রাণকেন্দ্রে নিজ ক্যাফে ‘দ্য সেকেন্ড ফ্লোরের’ সামনে গত এপ্রিলে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান। সমমনা কবি, সাহিত্যিক, শিল্পী, গায়ক আর মুক্তমনাদের মিলনমেলা হয়ে উঠেছিল দ্য সেকেন্ড ফ্লোর। বেলুচিস্তানে বছরের পর বছরজুড়ে বেলুচদের ওপর চলা নিপীড়নের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়াই তাঁর অপরাধ। বেলুচিস্তান নিয়ে এক সেমিনারে অংশ নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন তিনি। এর আগে লাহোরের প্রখ্যাত লাহোর ইউনিভার্সিটি অব ম্যানেজমেন্ট সায়েন্সে এ রকম একটি সেমিনার বাতিল করতে হয়েছিল সরকারের চোখরাঙানির কারণে। করাচির সেমিনারকে ঘিরেও সরকারের কাছ থেকে হুমকি রয়ে গিয়েছিল। কিন্তু কোনো বাধা মানেননি তিনি।

সাবিনের স্মরণে দ্য ফ্রাইডে টাইমস-এ অসাধারণ এক শোকগাথা লেখেন পাকিস্তানি কবি ও সাহিত্যিক সালমান তারিক কোরেশি। লেখার ইতি টানেন এভাবে: ‘তাঁকে মারা হয়েছে কারণ মুক্তচিন্তা বেশ ছোঁয়াচে। এর দ্রুত বিস্তার রোধে যেসব জায়গায় এর জন্ম, সেখানেই এর বিনাশ জরুরি। তাঁর হত্যাকাণ্ড বাকিদের জন্য এক সতর্কবার্তা।’১

সাবিনের মতো একদল মানুষের স্বাধীন চিন্তা আর কাজের রাশ টেনে ধরার জন্য তাদের ভেতর ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে আতঙ্ক। আর এভাবেই স্বচ্ছতা, অবাধ তথ্যপ্রবাহ এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের এই যুগে আতঙ্ক আর ভয় হয়ে উঠেছে রাজনৈতিক লক্ষ্য অর্জনের শক্তিশালী অস্ত্র।

pathok

যোগাযোগের ঠিকানা

সিএ ভবন,
১০০ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,
কারওয়ান বাজার, ঢাকা - ১২১৫।

ফোন: ৮৮০-২-৮১১০০৮১, ৮১১৫৩০৭
ফ্যাক্স - ৮৮০-২-৯১৩০৪৯৬

protichinta kinte chile