protichinta

বাংলাদেশে কিশোরীদের যৌন হয়রানির প্রাসঙ্গিক ব্যাখ্যা

পাপড়ীন নাহার, মার্টিন ভ্যান রিওয়্যাক, রিয়া রিইস

সারসংক্ষেপ

নারীর ওপর যৌন সহিংসতা এবং হয়রানির নজির প্রায় সব সমাজেই বিদ্যমান, যার নানা ধরনের নেতিবাচক মনস্তাত্ত্বিক প্রভাব রয়েছে। এই প্রবন্ধে একটি নির্দিষ্ট ধরনের যৌন হয়রানি—যথা ‘ইভ টিজিং’-এর বিভিন্ন মাত্রা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। বাংলাদেশের কিশোরীরা (১২ থেকে ১৮ বছর) যে অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হয়, সেটি যুবক-যুবতীদের দ্বারা সংঘটিত বয়ঃসন্ধিকালীন যৌন আচরণ-সম্পর্কিত এই গবেষণা থেকে উঠে এসেছে। এই গবেষণায় গুণগত পদ্ধতিসমূহ এবং একটি অংশগ্রহণমূলক অ্যাপ্রোচ, যেমন ফোকাস গ্রুপ ডিসকাশনস, মূল জ্ঞাপকের সাক্ষাত্কার এবং পর্যবেক্ষণ ব্যবহার করা হয়েছে। ফলাফলে দেখা গেছে, নিষিদ্ধ বিষয় হওয়া সত্ত্বেও অবিবাহিত কিশোর-কিশোরীরা যৌনতা, যৌন-কামনা উদ্রেককারী আনন্দ এবং রোমান্স বিষয়ে সক্রিয়ভাবে জানতে আগ্রহী এবং এসব তারা জেনে যায়। এসব তথ্য খুব সহজেই ভিডিও, মোবাইল ফোন ক্লিপস এবং পর্নোগ্রাফিক ম্যাগাজিন থেকে পাওয়া যায়। নৃতাত্ত্বিক বিশ্লেষণের মাধ্যমে জানা যায় যে, একদিকে অবদমিত সামাজিক ব্যবস্থা, অন্যদিকে অবাধ তথ্যের বিচরণ দুই দুইয়ের বহিঃপ্রকাশ লিঙ্গবৈষম্যকে উসকে দেয়। কিশোরদের যৌন অনুভূতির বহিঃপ্রকাশের একটি মাধ্যম হচ্ছে ‘ইভ টিজিং’, তারা এটি করে আনন্দ পায় এবং তাদের পৌরুষত্ব প্রকাশ করতে পারে। কিশোরীরা এটা অপছন্দ করে এবং এটা করতে প্ররোচিত করার দায়ে দোষী হওয়ার ভয়ে থাকে। সুতরাং, ‘ইভ টিজিং’ বাংলাদেশে যৌনতা-সম্পর্কিত সামাজিক-সাংস্কৃতিক আদর্শসমূহ এবং যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য-সম্পর্কিত তথ্য ও সেবার অপ্রতুলতার ফল। এই তথ্যসমূহ একটি সমন্বিত যৌন-শিক্ষার গুরুত্বকে নির্দেশ করছে, যা নিছক স্বাস্থ্যকেন্দ্রিকতার বাধা ডিঙাবে এবং জেন্ডার-সম্পর্কিত আদর্শসমূহ তুলে ধরবে এবং তরুণ-তরুণীদের সামাজিক-যৌনতা মিথস্ক্রিয়ার দক্ষতাসমূহ অর্জনে সাহায্য করবে।

মুখ্য শব্দগুচ্ছ: ইভ টিজিং, কিশোর-কিশোরী, যৌন হয়রানি, জেন্ডার বৈষম্য, যৌনতা-শিক্ষা, বাংলাদেশ।

pathok

যোগাযোগের ঠিকানা

সিএ ভবন,
১০০ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,
কারওয়ান বাজার, ঢাকা - ১২১৫।

ফোন: ৮৮০-২-৮১১০০৮১, ৮১১৫৩০৭
ফ্যাক্স - ৮৮০-২-৯১৩০৪৯৬

protichinta kinte chile